ঢাকা, ১৮ জুলাই, ২০১৯ || ৩ শ্রাবণ ১৪২৬
bbp24 :: বরেন্দ্র প্রতিদিন
২৮১

শাহজালালে পাকিস্তানি কসমেটিকস পণ্য জব্দ

প্রকাশিত: ১ অক্টোবর ২০১৬  

শাহজালালে পাকিস্তানি কসমেটিকস পণ্য জব্দ

শাহজালালে পাকিস্তানি কসমেটিকস পণ্য জব্দ


শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পাকিস্তান থেকে আসা ছয় যাত্রীর কাছ থেকে প্রায় ৯ মণ কসমেটিকস পণ্য জব্দ করেছে শুল্ক গোয়েন্দা। ওই ছয় যাত্রীকে আটক করা হয়েছে।

শনিবার বিকেলে বিমানবন্দরে অভিযান চালিয়ে ওই যাত্রীদের কাছ থেকে ৩৭০ কেজি (প্রায় ৯ মণ) কসমেটিকস জব্দ করা হয়। এসব পণ্যের দাম প্রায় ২৫ লাখ টাকা।

আটককৃতরা সবাই বাংলাদেশি। এরা হলেন- কুমিল্লার শাহীন আলম, ডালিম হোসাইন, বাবুল ও মিনার, মাদারীপুরের মো. মোশারফ ব্যাপারী এবং নারায়ণগঞ্জের শেখ খুরশিদ আলম।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মঈনুল খান তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

শুল্ক গোয়েন্দা সূত্রে জানা যায়, ওই ছয় যাত্রী করাচি থেকে কলম্বো হয়ে মিহিন লঙ্কা এয়ারলাইন্সের এমজে৫০১ ফ্লাইটযোগে ঢাকায় আসেন। অবতরণের পর তাদের ওপর নজরদারি করার একপর্যায়ে তাদের দখলে রাখা ২৩টি ব্যাগ শনাক্ত করা হয়। পরে ব্যাগগুলো তল্লাশি করে এসব অবৈধ কসমেটিকস পণ্য পাওয়া যায়।

পণ্যের নমুনা পরীক্ষা করে দেখা যায়, এগুলো পাকিস্তানি গোরী ও চাঁদনি ব্র্যান্ডের। এসব কসমেটিকস ত্বকের যত্ন ও সৌন্দর্য চর্চায় ব্যবহার করা হয়। অনুমোদন ছাড়া আনা এসব পণ্য মানসম্মত কি না তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। যাত্রীরা ব্যাগেজ বিধিমালা অনুসারে এসব বাণিজ্যিক পণ্যের কোনো ঘোষণা দেননি। গ্রিন চ্যানেল পার হবার সময় তাদের গতি রোধ করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

সূত্র আরো জানায়, আমদানি নীতি আদেশ অনুযায়ী, বিএসটিআইয়ের অনুমোদন ছাড়া এসব কসমেটিকস পণ্য ব্যাগেজে আমদানি করা যায় না। তা ছাড়া যাত্রী ব্যাগেজ বিধিমালা অনুযায়ী, বাণিজ্যিক পরিমাণে কোনো পণ্য আমদানি করলে আমদানি ও রপ্তানি নিয়ন্ত্রকের ছাড়পত্র লাগে, যা এই যাত্রীরা দেখাতে পারেননি। যাত্রীদের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা প্রায়ই ঢাকা-করাচি রুটে যাতায়াত করেন।

এসব যাত্রী কোনো অপরাধের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।


এই বিভাগের আরো খবর