ঢাকা, ২৫ মার্চ, ২০১৯ || ১০ চৈত্র ১৪২৫
bbp24 :: বরেন্দ্র প্রতিদিন
৩৫

বিদায় ২০১৮

প্রকাশিত: ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮  


আজ বিদায় নিচ্ছে ২০১৮ সাল। কাল ভোরে নতুন বছরের নতুন সূর্যোদয়। অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশও স্বাগত জানাবে নতুন বছরকে। পুরনো বছর বিদায় নিলেও কিছু ঘটনা মানুষের মনে স্মৃতি হয়ে থাকবে। সে স্মৃতি কখনো আনন্দের, কখনো বেদনার। আগের বছরের মতো এই বছরটিও শুরু হয়েছিল স্বস্তি ও শান্তির আবহে। বছরজুড়ে ছিল না কোনো রাজনৈতিক সহিংসতা। ২০১৮ সালে নানা ইতিবাচক ঘটনার কারণে বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি আরো উজ্জ্বল হয়েছে। রাজনৈতিক অঙ্গনের আলোচিত বিষয় ছিল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। বছরের শেষার্ধে এসে নির্বাচন সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে রাজনৈতিক দল ও জোটগুলোর সংলাপ ছিল আলোচনার বিষয়বস্তু। গতকাল সব দলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয়েছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় দুই মামলার রায় হয়েছে ২০১৮ সালে। রায়ে ১৯ জনের মৃত্যুদণ্ড, ১৯ জনের যাবজ্জীবনের আদেশ দেওয়া হয়। মহাকাশে গেছে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট। ২০১৮ সালের একটি গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা ছিল শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক আন্দোলন। রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে দুই বাসের প্রতিযোগিতার কারণে সংঘটিত মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থী নিহত ও ১২ শিক্ষার্থী আহত হওয়ার পর প্রথমে রাজধানীতে, পরে সারা দেশে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। একটানা আন্দোলনের কারণে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়। শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের কারণেই পাস হয় সড়ক নিরাপত্তা আইন। ২০১৭ সালের মতো ২০১৮ সালেও রোহিঙ্গা সংকট ভুগিয়েছে বাংলাদেশকে। মানবিক সংকট হিসেবে শুরু হলেও পর্যায়ক্রমে ভূরাজনৈতিক সংকটে রূপ নিচ্ছে রোহিঙ্গা ইস্যু। এ সংকটের মাত্রা এত ব্যাপক যে এখন আর এর দ্রুত সমাধানের পূর্বাভাস দিতে পারছেন না কোনো বিশ্লেষকই। বিশ্বের বড় ক্ষমতাধর দেশগুলো যখন সীমান্ত বন্ধ করে রেখেছে, তখন ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়ার মতো মহানুভবতা দেখিয়েছে বাংলাদেশ। ২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নতুন করে রোহিঙ্গা নিধন ও বিতাড়ন শুরু হলে প্রায় সাড়ে ছয় লাখ রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। নিপীড়িত এই জনগোষ্ঠীকে আশ্রয় দিয়ে ২০১৮ সালেও বাংলাদেশ বিশ্ববাসীর প্রশংসা কুড়িয়েছে। ক্রীড়াক্ষেত্রে ২০১৮ সালে অর্জিত হয়েছে অনেক সাফল্য। প্রমীলা ক্রিকেটে টানা ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন ভারতকে হারিয়ে এশিয়া কাপ জয় করেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। এ বছর আমরা হারিয়েছি অনেক গুণীজনকে। যাঁদের অভাব কখনো পূরণ হবে না। সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ ফুটবলেও শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। ক্রিকেটে দেশের অভ্যন্তরে আন্তর্জাতিক ম্যাচে সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ২০১৮ সালে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অনেক গুণীজনকে হারিয়েছি আমরা। ভালো-মন্দ সব মিলিয়ে বিদায় নিচ্ছে ২০১৮। আসছে ২০১৯। নতুন বছরেও বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা অব্যাহত থাক। আমাদের পাঠক, শুভানুধ্যায়ী, বিজ্ঞাপনদাতা ও বিপণনকারী—সবাইকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা। শুভ নববর্ষ।