ঢাকা, ১৮ জুলাই, ২০১৯ || ৩ শ্রাবণ ১৪২৬
bbp24 :: বরেন্দ্র প্রতিদিন
৩৩৭

প্রয়োজনমত কয়েন সরবরাহে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

প্রকাশিত: ৯ জুন ২০১৪  


জনসাধারণের দৈনন্দিন প্রয়োজনে তাদেরকে খুচরা ধাতব মুদ্রা (কয়েন) সরবরাহ করতে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। একইসঙ্গে গ্রাহকদের কাছ থেকে মূল্যমান নির্বিশেষে সব নোট গ্রহণেরও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। এ নির্দেশ অমান্য করলে সংশ্লিষ্ট ব্যাংককে কঠোর শাস্তি পেতে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকের কারেন্সি ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টের এক পরিপত্রে এসব কথা বলা হয়েছে। পরিপত্রে বলা হয়, সম্প্রতি অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনসাধারণ ব্যাংক শাখা থেকে প্রয়োজন মাফিক ধাতব মুদ্রার সরবরাহ পাচ্ছে না।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিদর্শনেও তফসিলী ব্যাংকের অনেক শাখায় ধাতব মুদ্রার মজুদ শূন্য পাওয়া গেছে। অন্যদিকে তফসিলী ব্যাংকের অনেক শাখায় গ্রাহকদের কাছ থেকে ছোট মূল্যমানের (দুই ও পাঁচ টাকা) নোট গ্রহণ করা হচ্ছে না মর্মেও অভিযোগ রয়েছে। এতে গ্রাহক বা জনগণ ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। যা অভিপ্রেত নয়।

এ অবস্থা থেকে উত্তোরণের পথও বাতলে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের যে কোনো অফিস থেকে নগদ অর্থ উত্তোলনের সময় ব্যাংকগুলোকে মোট উত্তোলিত নগদ অর্থের কমপক্ষে শূন্য দশমিক ১০ শতাংশ এক, দুই ও পাঁচ টাকা মূল্যমানের ধাতব মুদ্রা নিতে হবে। একইসঙ্গে ব্যাংকের প্রতিটি শাখায় নতুন বা পুনঃপ্রচলনযোগ্য নোট যোগান ও বিনিময়ের জন্য স্থাপিত পৃথক কাউন্টারের মাধ্যমে এক, দুই ও পাঁচ টাকার ধাতব মুদ্রাও ব্যাংকগুলো গ্রাহক বা সর্ব সাধারণের মধ্যে বিতরণের ব্যবস্থা করবে।

পরিপত্রে আরো বলা হয়, জনসাধারণের দৈনন্দিন প্রয়োজনে খুচরা ধাতব মুদ্রার সুষ্ঠু সরবরাহ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে বর্ণিত পরিপত্রের নির্দেশনা যথাযথভাবে পরিপালন এবং সেইসঙ্গে সব তফসিলী ব্যাংকের প্রতিটি শাখায় অবিলম্বে পর্যাপ্ত পরিমানে এক, দুই ও পাঁচ টাকা মূল্যমানের ধাতব মুদ্রা সংরক্ষণের পাশাপাশি গ্রাহকদের কাছ থেকে মূল্যমান নির্বিশেষে সব নোট গ্রহণ করার জন্যও নির্দেশ প্রদান করা হলো। এ নির্দেশ অমান্যকারী ব্যাংকের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

মেঘ


এই বিভাগের আরো খবর