ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি, ২০১৯ || ৫ মাঘ ১৪২৫
bbp24 :: বরেন্দ্র প্রতিদিন
১২

নওগাঁয় ৬টি আসনে ভোট পড়েছে ৮৪ শতাংশ

প্রকাশিত: ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮  


নওগাঁ প্রতিনিধি : ভোটের দিন নওগাঁর ছয়টি আসনের অধিকাংশ কেন্দ্রেই ভোটারদের উপস্থিতি কম দেখা গেলেও ছয়টি আসনে গড়ে ভোট পড়েছে ৮৪ শতাংশ। নির্বাচন কমিশনের দেওয়া ভোটের ফলাফলে এ তথ্য জানা গেছে।  নওগাঁ রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, নওগাঁ জেলার ছয়টি আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ২০ লাখ ২ হাজার ৭৩৬। এর মধ্যে ভোট দিয়েছেন ১৬ লাখ ৭৭ হাজার ৯৭৯ জন। অর্থাৎ নওগাঁর ছয়টি আসনে গড়ে ৮৩ দশমিক ৭৪ শতাংশ। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভোট পড়েছে নওগাঁ-৩ (মহাদেবপুর ও বদলগাছী) আসনে। এ আসনে ভোট পড়ার হার ৮৭ দশমিক ৬৬ শতাংশ। এর পরেই ভোট পড়েছে নওগাঁ-২ (পত্নীতলা ও ধামইরহাট) আসনে। এ আসনে ভোট পড়ার হার ৮৭ দশমিক ৪৩ শতাংশ।  নওগাঁ-১ (নিয়ামতপুর, পোরশা ও সাপাহার) আসনে ভোট পড়েছে ৮৫ দশমিক ৬২ শতাংশ। নওগাঁ-৪ (মান্দা) আসনে ভোট পড়েছে ৭৮ দশমিক ৮৩ শতাংশ। নওগাঁ-৫ (সদর) আসনে ভোট পড়ার হার ৭৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ এবং নওগাঁ-৬ (রাণীনগর ও আত্রাই) আসনে ভোট পড়েছে ৮১ দশমিক ৩৬ শতাংশ।  ভোটের দিনের পরিস্থিতি বিচারে গড়ে ৮৪ শতাংশ হারে ভোট পড়াকে অস্বাভিক বলে মনে করছেন নওগাঁর সাধারণ ভোটার ও সচেতন মহল। তারা বলছেন, ভোটের দিন ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল খুবই কম। ভোট শুরুর দুই থেকে তিন ঘন্টা পর্যন্ত ভোটকেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি ভালো দেখা গেলেও দুপুর ১২টার পর প্রায় অধিকাংশ কেন্দ্রই ফাঁকা হয়ে যায়। এরপরেও ৮৪ শতাংশ হারে ভোট পড়াকে অস্বাভাবিক মনে করছেন তারা।  এ বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তা মিজানুর রহমান দাবি করেন, ‘নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে। নওগাঁতে ভোটের দিন তেমন কোনো দাঙ্গা-হাঙ্গামা হয়নি। ভোটের দেন যেসব কেন্দ্র পরিদর্শন করেছি, সেসব কেন্দ্রে ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি দেখেছি। মানুষ দল-মত নির্বিশেষে উৎসবের আমেজে ভোট দিয়েছে। সে হিসেবে ভোট পড়ার এ হারকে অস্বাভিক মনে করছি না।’ তুলনামূলক সুষ্ঠু নির্বাচন হিসেবে বিবেচিত ২০০৮ সালে নওগাঁর ছয়টি আসনে ভোট পড়ার হার ছিল ৭১ দশমিক ৭৭ শতাংশ এবং ২০০১ সালে ভোট পড়ার হার ছিল ৬৯ দশমিক ৪৩ শতাংশ।