ঢাকা, ১৮ জুলাই, ২০১৯ || ৩ শ্রাবণ ১৪২৬
bbp24 :: বরেন্দ্র প্রতিদিন
১৪

এরশাদ লাইফ সাপোর্টে

প্রকাশিত: ৫ জুলাই ২০১৯  


ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় তাঁকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তাঁর অবস্থার অবনতি হয়। বিকেল ৪টা ১০ মিনিটে তাঁকে লাইফ সাপোর্ট দেন চিকিৎসকরা। এরশাদের ডেপুটি প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার জালালী  এ তথ্য জানিয়েছেন। এর আগে দুপুর ২টার দিকে হাসপাতালে এরশাদকে দেখে তাঁর স্ত্রী রওশন এরশাদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘উনার (এরশাদ) শারীরিক অবস্থাসংক্রান্ত সব প্রতিবেদন সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকদের কাছে পাঠানো হয়েছে। ডাক্তাররা কী মতামত দেন, সেটার ওপর নির্ভর করে আমরা দেখব অন্য কিছু করা যায় কি না। এখানকার ডাক্তাররা যত্নসহকারে চিকিৎসা করছেন, সর্বতোভাবে চেষ্টা করছেন।’ স্বামীর সুস্থতা কামনায় দলের নেতাকর্মী ও দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন রওশন। এ সময় রওশনের সঙ্গে ছেলে সাদ এরশাদ, এরশাদের ছোট ভাই ও জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জি এম কাদের, দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আনিসুল ইসলাম মাহমুদও উপস্থিত ছিলেন। এ সময় জি এম কাদের সাংবাদিকদের বলেন, ‘উনার (এরশাদ) অবস্থা অবনতির দিকে যাচ্ছে। অনেক ক্ষেত্রে অনেক সমস্যা দেখা দিচ্ছে। বার্ধক্যজনিত কারণে এটা হচ্ছে। দোয়া করা ছাড়া আমাদের কিছু করার নেই।’ এর আগে সকালে বনানীতে জাপা চেয়ারম্যানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে ব্রিফিংয়ে জি এম কাদের বলেন, ‘উনার (এরশাদ) শারীরিক অবস্থার লক্ষণ মোটেও শুভ নয়। ফুসফুস ও কিডনির সংক্রমণের উন্নতি যতটা হওয়ার কথা ছিল, ততটা হয়নি। সিঙ্গাপুরে নেওয়ার মতো শারীরিক অবস্থা নেই তাঁর। আর সিঙ্গাপুরে নেওয়া হলেও উপকার হবে কি না, তাতে সন্দেহের অবকাশ আছে।’ এরশাদের সুস্থতা কামনা করে আজ শুক্রবার দোয়া ও প্রার্থনার আয়োজন করবে জাতীয় পার্টি। ৯০ বছর বয়সী সাবেক সামরিক শাসক এরশাদ দীর্ঘদিন রক্তের রোগ মাইলোডিসপ্লাস্টিক সিনড্রোমে ভুগছেন। তাঁর অস্থি-মজ্জা পর্যাপ্ত হিমোগ্লোবিন উত্পাদন করতে পারছে না। গত ২২ জুন সকালে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করার পর এরশাদের ফুসফুস ও কিডনিতে সংক্রমণের বিষয়টি ধরা পড়ে।


এই বিভাগের আরো খবর