ঢাকা, ১৯ ডিসেম্বর, ২০১৮ || ৫ পৌষ ১৪২৫
bbp24 :: বরেন্দ্র প্রতিদিন

আচমকা ‘হিজবুল্লাহর সুড়ঙ্গ’ ধ্বংসের অভিযানে ইসরায়েল

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০১৮  


সরাতেই এ অভিযান শুরু করলেন নেতানিয়াহু। গতকাল মঙ্গলবার এক টুইটার বার্তায় সুড়ঙ্গ ধ্বংসের অভিযানের কথা জানায় ইসরায়েলের সামরিক বাহিনী। বাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল জোনাথন কনরিকাস বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানান, দুই দেশের সীমান্তের শুধু ইসরায়েলের অংশে এ অভিযান চালানো হচ্ছে। লেবাননের ভূখণ্ড পর্যন্ত তা বিস্তৃত হবে না। তিনি বলেন, ‘আমরা হিজবুল্লাহর কার্যক্রমকে ইসরায়েলের সার্বভৌমত্বের চরম লঙ্ঘন হিসেবেই মূল্যায়ন করি।’ কনরিকাস জানান, এসব সুড়ঙ্গ হিজবুল্লাহর ২০১২ সালের পরিকল্পনার একটা অংশ, যার মাধ্যমে তারা ইসরায়েলি ভূখণ্ড অস্থিতিশীল করতে চায়। এসব সুড়ঙ্গ খোঁড়ার খবর ইসরায়েলি সেনাবাহিনী প্রথম জানতে পারে ২০১৩ সালে। কিন্তু এত দিন সেগুলোর অবস্থান শনাক্ত করা যায়নি। এক টুইটার বার্তায় ইসরায়েলের সামরিক বাহিনীর আরেক মুখপাত্র আভিচে আদরায়ি অভিযোগ করেন, সীমান্তে সুড়ঙ্গ খোঁড়ার পুরো দায় লেবানন সরকারের। তারা নিজেদের জনগণের জীবনকে হুমকির মুখে ফেলে দিয়েছে। আলজাজিরার খবরে বলা হয়, ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু গত সোমবার রাতে অপ্রত্যাশিত এক সফরে ব্রাসেলসে গিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। আর সেখানে অভিযানের বিষয়ে কথা হয়। আর অভিযান শুরু হয় গতকাল সকালে। তবে সীমান্তে ইসরায়েলি সেনাদের এ ধরনের অভিযান খুব একটা দেখা যায় না। আলজাজিরার খবরে আরো বলা হয়, অভিযানের সময়টা গুরুত্বপূর্ণ। এমন সময় এ অভিযান চালানো হলো, যার তিন দিন আগে ইসরায়েলি পুলিশ বলেছে যে দুর্নীতির অভিযোগে নেতানিয়াহু ফেঁসে যেতে পারেন। এমনকি তিনি ক্ষমতাচ্যুতও হতে পারেন। এ অবস্থায় নিজের জনপ্রিয়তা ধরে রাখতে এবং দুর্নীতির অভিযোগ থেকে সবার দৃষ্টি অন্যদিকে সরাতে তিনি সম্ভবত অভিযান চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এদিকে ইসরায়েলি অভিযানের ব্যাপারে হিজবুল্লাহর পাল্টা কোনো জবাব কিংবা তাত্ক্ষণিক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। 


এই বিভাগের আরো খবর